আপনার প্রিয়জনের সাথে ভালবাসার সম্পর্কে যেভাবে রোমান্স বজায় রাখবেন চিরদিন

sweet-kiss

বর্তমান সময়ে খুব সহজে যে কোন সম্পর্ক ভেঙ্গে যায়। জনম জন্মান্তর একসাথে থাকার হাজার হাজার ওয়াদা করে পরবর্তীতে তা কয়েক মাসের মাঝে ভেঙ্গে যায়।

প্রথম প্রথম একে অপরের প্রতি অনেক ভালবাসা থাকলেও ক্রমেই তা বিলীন হয়ে যায়। তাই অবশ্যই কোন সম্পর্ক হতে ভালবাসাকে হারানো যাবে না। তাই সম্পর্কে ভালবাসা বজায় রাখার জন্য কি করা প্রয়োজন তা নিয়ে আলোচনা করা হল-

১. অবশ্যই প্রতিদিন কিছু সময় একান্তে কাটানো প্রয়োজন। অনেক দম্পতি সারাক্ষণ একসাথে থাকলেও একই কক্ষে থাকলেও নিজেদের কাজে এতো বেশি ব্যস্ত থাকতে দেখা যায় যে, তারা একে-অপরের সাথে ভালভাবে কথাও বলতেও পারেন না। তাই প্রতিদিন কিছু সময় কিছু সময় অবশ্যই একান্তে কথা বলুন। কথা বোলার কিছু না থাকলে সারাদিন কেমন কাটল তা নিয়ে আলোচনা করুন।

২. সংসার সামলাতে যেয়ে অনেক সময় আমরা নিজেদের সময় দিতে ভুলে যাই। এর জন্য খুব কাছের মানুষের সাথে আমাদের দূরত্ব সৃষ্টি হয়। তাই সপ্তাহে অন্তত একদিন, তা না হলেও মাসে অন্তত একবার কোথাও ঘুরতে যাওয়া উচিৎ। এতে আপনারা আপনাদের পুরানো দিন আবার নতুন করে ফিরে পাবেন।

৩. আপনার ভালবাসার কথা প্রকাশ করেন। সম্পর্কে কিছুদিন যেতে না যেতে সকলে মনে করেন যে, ভালবাসা তো হয়ে গেছে। আমি তাকে বলেছি সেও আমাকে বলেছে। আর কিছু বোলার নেই এখন। কিন্তু তা মোটেও উচিৎ নয়। বলছিনা দিনে হাজার বার তাকে ভালবাসার কথা বলুন, তবে দিনে অন্তত একবার তাকে কাছে নিয়ে একবার তো বলতে পারেন, বিশেষ সে তিনটি শব্দ।

৪. একে-অপরের সাথে সময় অতিবাহিত করার কোন সুযোগ হারাবেন না। সময় না দেয়ার কারণে সম্পর্ক কখন যেন হারিয়ে যায়। একে-অপরের ভালবাসায় যেভাবে না বুঝে পড়েছিলেন, সেভাবে কখন যেন ভালবাসা হারিয়ে যাবে বুঝতেও পারবেন না।

৫. প্রতিটি মানুষের নিজস্ব স্বাধীনতা থাকা প্রয়োজন। আপনি নিজে যেমন নিজ ইচ্ছায় অনেক কিছু করতে চান, ঠিক সেভাবে তাকেও সময় দিন তার মনমত কাজ করতে। মেয়েদের ক্ষেত্রে দেখা যায়, তার সঙ্গীরা বন্ধুদের বেশি সময় দেক তা পছন্দ করেন না। আবার ছেলেরা পছন্দ করে না মেয়েরা তাদের তুলনায় অন্য কোন কাজে বেশি সময় অতিবাহিত করুক। সেখানেই শুরু হয় বিপত্তি। একে-অপরকে বুঝে নিজ নিজ স্বাধীনতা বজায় রাখতে হবে। এতে আপনাদের সম্পর্কের ভীত আরও বেশি মজবুত হবে।

Share To Social Site To show your Friend